আজ ২৩শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৬ই মে, ২০২১ ইং

সরকার মাফিয়াদের নিয়ে দেশ চালাচ্ছে: মির্জা ফখরুল

ভাপ্রেস।।

বর্তমান সরকার মাফিয়াদের নিয়ে দেশ চালাচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, ‘একটা মাফিয়া সরকার তৈরি হয়েছে। প্রত্যেকটি ক্ষেত্রেই মাফিয়ারা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে। আর শুধুমাত্র তাদের দুর্নীতির কারণেই ভ্যাকসিন সংগ্রহে সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে পারেনি। সরকার দায়িত্বহীন ও অযোগ্য এবং জনগণের সঙ্গে সম্পর্কহীন হলেই এ রকম ভুল সিদ্ধান্ত নেওয়া সম্ভব।’

রোববার দুপুরে এক ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে তিনি আরও বলেন, ‘বাংলাদেশের পরিণতি যে এটা হবে- এটা আমরা আগে কল্পনাও করতে পারিনি। আজকে দুর্ভাগ্য আমাদের, ৫০ বছর পরেও আমাদেরকে এরকম ভয়ংকর একটা পরিস্থিতি দেখতে হচ্ছে। সেই কারণে এই পরিস্থিতি থেকে মুক্তি পেতে হলে অবশ্যই এখানে একটি নিরপেক্ষ, সুষ্ঠু, অবাধ নির্বাচন হতে হবে। সেই সুষ্ঠু অবাধ নির্বাচন করার জন্যে একটি নিরপেক্ষ সরকার দরকার হবে এবং এজন্য আমাদেরকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে আওয়ামী লীগকে সরিয়ে সত্যিকার অর্থেই জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করতে হবে।’

শনিবার দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সভাপতিত্বে জাতীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠকের সিদ্ধান্ত আজকের ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে তুলে ধরেন বিএনপি মহাসচিব। ওই বৈঠকে ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যরিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ড. আব্দুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, বেগম সেলিমা রহমান, ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু উপস্থিত ছিলেন।

রোববার সংবাদ সস্মেলনে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘ভ্যাকসিনের অভাবে টিকা প্রদানের কার্যক্রম হঠাত করেই বন্ধ করায় স্থায়ী কমিটির বৈঠকে উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেছে- এই বিষয়ে প্রথম থেকেই সরকারকে বিএনপি সতর্ক করে বলেছিলো- টিকা বা ভ্যাকসিনের বিকল্প উৎস রাখা উচিত এবং এই বিকল্প উৎস না রাখলে যেটা হবে- হঠাৎ করেই যদি কোনো উৎস থেকে বন্ধ হয়ে যায় তখন কিন্তু দেশের পুরো স্বাস্থ্য ব্যবস্থা ভেঙে পড়বে। কিন্তু তাতে সরকার কোনো কর্ণপাত না করে শুধুমাত্র তাদের দুর্নীতির জন্যে তারা তাদের নিজস্ব দুর্নীতি পরায়ন কোম্পানির মাধ্যমে শুধুমাত্র ভারত থেকেই একমাত্র কোম্পানির ভ্যাকসিন সংগ্রহ করতেই কার্যক্রম গ্রহণ করেছিলো। যে কারণে আজকে গোটা জাতি বিপদগ্রস্ত হয়েছে।’

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘টিকা উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান বলছে যে, আগে তারা ভারতের চাহিদা পূরণ করবে। সেখানে বাংলাদেশে টিকা সরবারহ করতে অপরাগতা ইতিমধ্যে প্রকাশ করেছে। ভারতের পররাষ্ট্র সচিব বলেছেন যে, ভারতের চাহিদা এখন বেশি এবং সেই কারণে সমস্ত রপ্তানি বাতিল করে দিয়ে আগের ভারতের চাহিদা পূরণ করতে শুরু করেছে। আমাদের সেখানে আপত্তি নেই- ভারত তো তার চাহিদা পূরন করবেই। কিন্তু আমাদের সরকার যে সম্পূর্ণ দায়িত্বহীনতার সঙ্গে একেবারে একটা অপরাধমূলক কাজ করেছে। তা হচ্ছে, তারা বিকল্প উৎসের কোনো অনুসন্ধান করেনি এবং বিকল্প উৎস থেকে ভ্যাকসিন সংগ্রহের আবশ্যকতা তারা গুরুত্ব সহকারে বিবেচনা করেনি। আমাদের যে আশংকা ছিলো সেই আশংকা আজকে সত্যে পরিণত হয়েছে। চীন ও রাশিয়ার কাছ থেকে ভ্যাকসিন সংগ্রহের সুযোগ থাকার পরেও তা গ্রহণ করা হয়নি।’

তিনি বলেন, ‘চীনের একজন মন্ত্রী এসেছিলেন দেশে এবং এখানে চীনের যে ভ্যাকসিন উৎপাদন ও পরীক্ষার জন্য অনুরোধ করেছিলেন। কিন্তু সরকার সেটাকে সম্পূর্ণভাবে অবজ্ঞা করেছে। সরকারের এই দায়িত্বহীনতা ও দুর্নীতির জন্য অবশ্যই জনগণের কাছে জবাবদিহি করতে হবে।’

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সভায় দেশে প্রাতিষ্ঠানিক ও অপ্রাতিষ্ঠানিক শ্রমিকদের মজুরী নির্ধারণ, কর্মে নিশ্চয়তা প্রদান এবং লকডাউনে কর্মচ্যুত শ্রমিকদের ক্ষতিপুরণ, খাদ্য সহায়তা নিশ্চিত প্রদান, বিএনপির প্রস্তাবিত প্রণোদনা অনুযায়ী প্রাতিষ্ঠানিক ও অপ্রাতিষ্ঠানিক শ্রমিকদের কর্মপক্ষে তিন মাসের জন্য ১৫ হাজার টাকা হারে এককালীন অনুদান প্রদান, শ্রমিক নির্যাতন ও বৈষ্যম বন্ধ এবং চট্টগ্রামের বাঁশখালীতে পুলিশের গুলিতে নিহতের পরিবার ও আহতদের যথাযথ ক্ষতিপুরণ ও গ্রেপ্তারকৃত শ্রমিকদের মুক্তি দাবি জানানো হয়েছে বলে জানান মহাসচিব।

একই সঙ্গে ফরিদপুরের সালথায় পুলিশের সঙ্গে জনতার সংঘর্ষের ঘটনায় নিরহ গ্রামবাসী হোসেন মাতুব্বর ডিবি হেফাজতের মৃত্যুবরণের ঘটনার নিন্দা জানিয়ে দোষীদের আইনের আওতা এনে বিচার দাবিও জানান তিনি।

সম্প্রতি ভারত কর্তৃক একতরফাভাবে অক্সিজেন রপ্তানি বন্ধ ঘোষণায় উদ্বেগ প্রকাশ করে স্থায়ী কমিটির সভায় বিকল্প উতস্য থেকে অক্সিজেনসহ নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্য আমদানীর ব্যবস্থা গ্রহণ এবং দেশে অক্সিজেন উৎপাদনের ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানানো হয় বলে জানান বিএনপি মহাসচিব। সুত্র: সমকাল

Leave a Reply

     এ জাতীয় আরও খবর.......

খবরটি বেশী পড়া হয়েছে

Don`t copy text!